আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে সরগরম যুক্তরাষ্ট্র

single-news-image

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে দেশটির রাজনীতির মাঠ এখন রীতিমতো গরম। চলছে আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণ। ডেমোক্রেটিক দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিসকে আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু করেছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার উত্তর ক্যারোলিনায় এক নির্বাচনী সভায় ট্রাম্প বললেন, কমলা হ্যারিস যদি যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তাহলে সেটা হবে আমেরিকার জন্য লজ্জার।

প্রতিপক্ষ জো বাইডেনকে আক্রমণ করে ট্রাম্প বলেন,‘একটা কথা মনে রাখা খুবই সহজ—বাইডেন যদি নির্বাচনে জেতেন তাহলে প্রকারন্তরে চীন জিতবে। এটা এতটাই সহজ সমীকরণ। আপনাদের সামনেই রয়েছে জ্বলন্ত উদাহরণ। কয়েক মাস আগেই আমরা বিশ্বের সর্ববৃহত্‍ অর্থনীতি হওয়ার দিকেই পা বাড়িয়েছিলাম। আর তখনই চীনের প্লেগ এসে সব ওলট পালট করে দিয়ে গেল। আমাদের সব কাজ কারবার বন্ধ করতে হল বাধ্য হয়ে। ধীরে ধারে আবার অর্থনীতি চাঙ্গা হওয়ার মুখে। এটা তো খুব স্পষ্ট কোন কারণে চীন এবং হামলাকারীরা চায় বাইডেন জিতুন। ওর নীতি আমেরিকার পতন ডেকে আনবে।’

কমলা হ্যারিস সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘মানুষ ওকে পছন্দ করেন না। কেউ ওকে পছন্দ করেন না। উনি কোনোদিনই আমেরিকার প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে পারেন না। এমনটা হল আমাদের দেশের সম্মান নষ্ট হবে। প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড় থেকে তো উনি নিজেই সরে গিয়েছিলেন। আর তার ঠিক পরেই ডেমোক্রেটিক পার্টি ওকে বেছে নিল। এটা বেশ ইন্টারেস্টিং।’

চীনের সঙ্গে হওয়া বাণিজ্যিক চুক্তি নিয়েও এদিন নিজের মত জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘আমরা চীনের সঙ্গে এক বিশাল মাপের বাণিজ্যিক চুক্তি সই করেছিলাম। তার কালি শুকানোর আগেই চীনের প্লেগ থাবা বসাল। ফলে এখন এই চুক্তিকে আমি একেবারে অন্য নজরে দেখছি।’

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যই চলতি বছরের ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র : এনডিটিভি।