লকডাউন শেষে জীবন যেমন চলছে উহান শহরে

single-news-image

চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে গত বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। করোনা ছড়িয়ে যাওয়ার জেরে দীর্ঘ ৭৬ দিন উহান শহর লকডাউনে থাকে। এরপর গত ৮ এপ্রিল লকডাউন খুলে দেয় চিন সরকার।

আড়াই মাস ধরে গৃহবন্দি থাকার পর উহান শহরের মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছে। লকডাউন চলা অবস্থায় সেখানকার পরিস্থিতি তুলে ধরেছিলেন দু’জন চলচ্চিত্রনির্মাতা।

এবার লকডাউন পরবর্তী সময়ে সেখানকার মানুষের জীবন কেমন চলছে, সেটা তুলে ধরেছেন হং চুটিয়ান। আর এটি প্রযোজনা করেছেন নাতালিয়া জুয়ো।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ওই নির্মাতাদের ধারণ করা ভিডিওটি প্রকাশ করেছে। তাতে দেখা যায়, উহান শহরের রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে গান গেয়ে সাহায্য চাইছেন এক ব্যক্তি। আর পাশে দাঁড়িয়ে তার গান উপভোগ করছে জনতা।

শহরের রাস্তায় বের হওয়া মানুষের মুখে মাস্ক দেখা যাচ্ছে। মোটরসাইকেল আরোহী এক নারী জানান, তিনি যে কারখানায় কাজ করতেন, তার মালিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

আরেক নারীকে রাস্তার পাশ থেকে দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতে বলছেন নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর একজন সদস্য। এমনকি ওই নারীকে তিনি দ্রুত জিনিসপত্র গুছিয়ে চলে যেতে বলছেন।

কারখানার বাইরে লাগানো মাইকে বারবার বলা হচ্ছে, কারো করোনা উপসর্গ দেখা দিলে গোপন যেন না করা হয়।

কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আবারো আগের মতো করে চালু থাকছে। তবে সে ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করতে হচ্ছে।

ফুল বিক্রেতা এক নারী বলছেন, শেষকৃত্যে এখনো বেশি লোকজনকে জানানো হচ্ছে না। সে কারণে তাদের ব্যবসা এখনো লকডাউনে থাকার মতোই।

এদিকে লকডাউন শেষে অনেকেই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন। এমনকি জীবন চলার নতুন সাথীকে নিয়ে বাইরে ঘুরতেও বের হচ্ছেন তারা। নদীর পাশেও দেখা যাচ্ছে অনেককেই। বিবিসি