বিশ্ব ভ্যাকসিন সম্মেলনে ৮৮০ কোটি ডলারের প্রতিশ্রুতি

single-news-image

প্রথমবারের মতো অনলাইনে সম্পন্ন হলো বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানসহ উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তিদের নিয়ে এমন সম্মেলন। যুক্তরাজ্যের উদ্যোগে আয়োজিত বিশ্ব ভ্যাকসিন সম্মেলনে বিশ্বের ৩০ কোটি শিশুর রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সহায়তার জন্য ৮৮০ কোটি ডলারের তহবিলের প্রতিশ্রুতি এসেছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এই সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন।

২০২৫ সাল নাগাদ হাম, পোলিও ও ডিপথেরিয়ার মতো রোগের বিরুদ্ধে বিশ্বের দরিদ্রতম দেশগুলোর শিশুদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে অবকাঠামো নির্মাণসহ স্বাস্থ্য সেবার সহায়তায় এই তহবিল ব্যয় হবে।

বৃহস্পতিবার গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (গ্যাভি) আয়োজিত ভার্চুয়াল সম্মেলনে এই তহবিলের প্রতিশ্রুতি আসে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে ৩৫ রাষ্ট্রপ্রধানসহ ৫২টি দেশের সঙ্গে বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংস্থা, বেসরকারি খাত, ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে বরিস জনসন বলেন, “আমাদের জীবনকালের সর্ববৃহৎ সাধারণ লক্ষ্য তথা বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য রোগের বিরুদ্ধে মানবতার বিজয় অর্জনে একসঙ্গে দাঁড়িয়েছি। ‘

ভ্যাকসিন সম্মেলন থেকে ৭৪০ কোটি ডলারের তহবিল সংগ্রহের লক্ষ্য থাকলেও প্রকৃত প্রতিশ্রুতি তা ছাপিয়ে যায়। এছাড়া নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশগুলোকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের সুযোগ দিতে নতুন উদ্ভাবনী অর্থায়ন প্রকল্পের জন্য ৫৬ কোটি ৭০ লাখ ডলারের প্রতিশ্রুতি এসেছে। কালের কন্ঠ