তবুও ভোর হবে…

single-news-image

নাটকের একটি দৃশ্য

ঢাকা ডন ডেস্ক: বিষাদ ও আবেগঘন একটি পরিচ্ছন্ন নাটক ‘তবুও ভোর হবে।’ দক্ষ নির্মাতা মুরশেদ হিমাদ্রীর পরিচালনায় পিক্টোরাইম পিকচার্সের এই নাটকটি সম্প্রতি প্রচারিত হয় এনটিভি চ্যানেলে। নাটকে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, তাসনুভা তিশা, মনোজ প্রামাণিক, সাবেরী আলম ও আরও অনেকে।

মনবাড়ি প্রযোজিত, পরিচালক হিমাদ্রীর নান্দনিক উপস্থাপনায় তানিন রহমানের রচনা ও চিত্রনাট্যে এই নাটকে একটি ম্যাসেজ  রয়েছে। অর্থের কাছে মায়া-মমতা, ভালোবাসা ম্লান হয়ে যায়। জীবনে কারুর জীবনে মৃত্যুর হাতছানি, কিন্তু আপনজনেরা অনেক দূরে। কেউ বা আসন্ন প্রসবা স্ত্রী’র কষ্টে বা তাকে হারাবার আশঙ্কায় ম্রিয়মাণ।

সপরিবারে পরিচালক মুরশেদ হিমাদ্রী

জীবনঘনিষ্ঠ এই নাটকে রূঢ় বাস্তবতায় মানুষের স্বার্থপরতার স্বরূপ  ফুটে উঠেছে সুন্দরভাবে।  অনেকদিন পর কোনো নাটকে শক্তিমান অভিনেতা তারিক আনাম খানের উপস্থিতি, তাসনুভা তিশার প্রাণবন্ত অভিনয়, মনোজ প্রামাণিকের সজীব উপস্থিতি নাটকটিকে ভিন্ন ডাইমেনশন দিয়েছে।

কেউ চলে যায়, কারুর আগমন ঘটে। প্রকৃতি থেমে থাকে না; যথা নিয়মে চলে। রাত্রি পার হয়ে ভোর হয়। জীবনের চাকা সচল হয়। তবে কারুর কারুর জীবনে রাতের তমসার পর ভোরের স্নিগ্ধতা কোনো পার্থক্য বয়ে আনে না।

নাটকের ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ও চিত্র ধারণ চমৎকার। তবে বেশ আবেগী সংলাপ ও অ্যাকশন। এই আবেগ ও কষ্ট টুকরো টুকরো করে কেটে ভিন্ন অবয়বে সাজালে আরেকটু ভালো হতো। মাঝখানে কিছু সামঞ্জস্যপূর্ণ দৃশ্যের অবতারণা হলে ভালো হতো। কিংবা ফ্ল্যাশব্যাকের মাধ্যমে অতীত দৃশ্যের সামান্য সুখ-হাস্যরসের অবতারণা হলে ভালো হতো।

তবে বর্তমানে গাঁয়ের হাস্যরস ও ভিলেনসুলভ নাটকের বেড়াজাল থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছে একটা ক্লাসিক কাহিনি।

পরিচালকের কাছে এরকম উপহার আরও আশা করছি।

নাটকটি দেখুন এখানে: