সুজন থেকে লোকমান; ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে বিব্রত বিসিবি

single-news-image

বেশ কয়েকজন বিসিবি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বহু আগে থেকেই ‘ক্যাসিনো প্রেমের’ অভিযোগ ছিল। এর মধ্যে খালেদ মাহমুদ সুজন তো দুইবার দেশের বাইরে ক্যাসিনোতে গিয়ে ক্যামেরাবন্দি হয়েছেন। দুইবারই তিনি ‘ক্যাসিনোতে খেতে গিয়েছিলাম’ বলে গণমাধ্যমকে এড়িয়ে যেতে চেয়েছেন। কিন্তু তার কোনো সাজা এখনও হয়নি। এবার খোদ ক্যাসিনো ব্যবসায়ী হিসেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বিসিবি পরিচালক লোকমান হোসেন ভূঁইয়া। এমন ঘটনায় এখন বেশ বিব্রত হয়ে পড়েছে বিসিবি।

বিশ্বকাপের পর গত শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে কলম্বোর একটি ক্যাসিনোতে ক্যামেরাবন্দি হন কখনো ম্যানেজার আবার কখনো কোচের ভূমিকায় থাকা খালেদ মাহমুদ সুজন। এই ঘটনা মিডিয়ায় প্রকাশিত হওয়ার পর তোলপাড় হয় দেশের ক্রিকেটাঙ্গনে। বলা বাহুল্য যে, সুজনের কোচিংয়ে লঙ্কায় ওই সিরিজে ধোলাই হয়েছিল বাংলাদেশ। সফরে গিয়ে একজন কোচ কীভাবে জুয়ার আড্ডায় যেতে পারেন, তার জবাব পাওয়া যায়নি। ওই ঘটনার পর বিসিবির একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। সুজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও বলেছেন অনেকে। কিন্তু বাস্তবে কিছুই হয়নি। কারণ তিনি বিসিবি প্রধানের ঘনিষ্ট হিসেবেই ক্রিকেটাঙ্গনে পরিচিত।

এবার দৈনিক ৭০ হাজার টাকায় ক্যাসিনো চালানোর জন্য মোহামেডান ক্লাবের জায়গা ভাড়া দিয়ে ধরা খেলেন লোকমান হোসেন। ক্যাসিনো চালিয়ে তার অর্জিত সম্পদের পরিমাণ ৪১ কোটি টাকা! যার প্রায় পুরোটাই বিদেশের ব্যাংকে রাখা। শুধু মোহামেডান নয়, কলাবাগান, আরামবাগ, ভিক্টোরিয়াসহ নামকরা ক্লাবগুলোর এই ক্যাসিনো কীর্তি ফাঁস হয়েছে। যার ফলে প্রমাণ হয়ে গেছে যে, দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট বা ফুটবল মানেই পাতানো খেলা। এসব ক্লাবে এখন খেলাটা লোক দেখানো, জুয়াটাই আসল। প্রতিদিন কোটি কোটি টাকা ওড়ে এসব ক্লাবে।

বিসিবির পরিচালক লোকমান গ্রেপ্তার হওয়ার পর বিসিবি আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া না জানালেও ব্যক্তিগতভাবে অনেকে বিব্রত বোধ করছেন। এটা প্রকাশিত হয়ে গেছে যে, বিসিবির সভাপতির সঙ্গে লোকমান-সুজনের বেজায় ঘনিষ্টতা ছিল। এর থেকে অনেক সুবিধা নিয়েছেন তারা। বোর্ডের এক পরিচালক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, এই অভিযানে দেশের ক্রীড়াঙ্গনের প্রকৃত চেহারা বেরিয়ে এসেছে যা ভীষণ বিব্রতকর। এবার যদি ক্লাবগুলোকে ঢেলে সাজানো যায়। প্রকৃত ক্রীড়া সংগঠকদের হাতে ক্লাবের দায়িত্ব না এলে কিছুদিন পর আবারও এই ক্যাসিনোর আসর শুরু হবে। কালের কন্ঠ