বসবাসের অযোগ্য শহরের তালিকায় একধাপ এগিয়ে তিনে ঢাকা

single-news-image

সারাবিশ্বের বসবাসের অযোগ্য শহরগুলোর তালিকায় এবার তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশের রাজধানি ঢাকা। বুধবার লন্ডনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান দি ইকোনমিস্ট ইনটেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) রিপোর্টে বলা হয়েছে, বসবাসের অযোগ্য ১৪০টি শহরের মধ্যে ঢাকার অবস্থান ১৩৮ নম্বরে। গত বছর ‘গ্লোবাল লিভাবিলিটি ইনডেক্স’ শীর্ষক তালিকায় ১৩৯ নম্বরে ছিল ঢাকা।

ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, বিশ্বে বসবাসের জন্য সবচেয়ে ভালো শহর অস্ট্রিয়ার রাজধানি ভিয়েনা। তারপরই রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন এবং জাপানের ওসাকা শহরের নাম। তবে বসবাসের অযোগ্য শহরের মধ্যে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ লিবিয়ার রাজধানি ত্রিপোলি ও পাকিস্তানের করাচির অবস্থা ঢাকার চেয়ে ভালো। যদিও বসবাসের অযোগ্য শহরের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে দামেস্ক এবং দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে লাগোস।

শহরে বসবাসের যোগ্যতার মোট ছয়টি বিষয়কে সূচক হিসেবে নির্ধারণ করে ১০০ নম্বর ঠিক করা হয়। তার মধ্যে ঢাকা পেয়েছে ৩৯ দশমিক দুই নম্বর। তাতে শহরের স্থিতিশীলতার দিক থেকে ৫৫, স্বাস্থ্যসেবায় ২৯ দশমিক দুই, সংস্কৃতি ও পরিবেশে ৪০ দশমিক পাঁচ, শিক্ষায় ৪১ দশমিক সাত এবং অবকাঠামোতে ২৬ দশমিক দুই নম্বর।

অন্যদিকে গত বছর স্থিতিশীলতার দিক থেকে ৫০, স্বাস্থ্যসেবায় ২৯ দশমিক দুই, সংস্কৃতি ও পরিবেশে ৪০ দশমিক পাঁচ, শিক্ষায় ৪১ দশমিক সাত এবং অবকাঠামোতে ২৬ দশমিক আট নম্বর পেয়েছিল ঢাকা।

এদিকে ভারতের রাজধানি দিল্লির অবস্থান ১১২ থেকে ছয় ধাপ পিছিয়ে ১১৮ তে গেছে এবং মুম্বাই ১১৭ থেকে দুই ধাপ পিছিয়ে ১১৯ নম্বরে নেমে গেছে। দিল্লি ও মুম্বাইয়ে গত এক বছরে বায়ুদূষণ ও পানির সঙ্কট তীব্র হয়েছে। তবে রাশিয়ার রাজধানি মস্কো এবং সার্বিয়ার বেলগ্রেডের অবস্থা আগের তুলনায় অনেক উন্নত হয়েছে।

দি ইকোনমিস্ট ইনটেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) রিপোর্ট/কালের কন্ঠ