নুসরাত জাহান রাফি আর নেই

single-news-image

নুসরাতের হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

ঢাকা ডন ডেস্ক:  অবশেষে চির বিদায় নিলেন নুসরাত জাহান রাফি। ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসার যে ছাত্রীকে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়েছিল তিনি বুধবার রাতে মারা গেছেন।

বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে চিকিৎসক ও পরিবারের সদস্যদের উদ্ধৃত করে জানানো হয়, বুধবার রাত ন’টার পর তিনি মারা গেছেন।

তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল এবং তার শরীরের ৮০ শতাংশই আগুনে পুড়ে গিয়েছিল বলে চিকিৎসকরা এর আগে জানিয়েছিলেন।

গত শনিবার সোনাগাজীর ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় আলিম পরীক্ষা দিতে গেলে কৌশলে  ওই মেয়েটিকে ছাদে ডেকে নিয়ে গিয়ে তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

গুরুতর দগ্ধ ওই ছাত্রীকে এর পর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।

পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল, সকালে পরীক্ষা দিতে কেন্দ্রে প্রবেশের আগে তাকে কয়েকজন মুখোশ পরা মেয়ে ভবনের ছাদে ডেকে নিয়ে যায়। পরিবারের অভিযোগ ওই মেয়েরাই মিথ্যা বলে, পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে আহত ছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে।

ছাত্রীটির ভাই বিবিসি বাংলাকে বলেন, তার বোন কয়েকদিন আগে তার মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা করেছিল, সেই ঘটনার জেরে ওই অধ্যক্ষের পক্ষের শিক্ষার্থীরা তার বোনকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করেছে।

এর আগে পুলিশ ওই ছাত্রীর হত্যাচেষ্টার ঘটনার মামলা নিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে ফেনীর সোনাগাজী থানার ওসিকে প্রত্যাহার করে। ঐ ছাত্রীকে হত্যা প্রচেষ্টায় অভিযুক্ত মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে ফেনীর আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে।

এছাড়া মাদ্রাসার প্রভাষককেও পাঁচ দিনের রিমান্ড দেয়া হয়েছে।

সোনাগাজী থানা জানিয়েছে, তারা অধ্যক্ষের শ্যালিকার মেয়েকেও রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করছে।