ফটিকছড়ি বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সরকারিকরণের দাবি

single-news-image

শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৮

এম আলী সিকদার, ফটিকছড়ি:

আউলিয়া-দরবেশ, সাধক-মহাসাধকের বিচরণক্ষেত্র চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি। এই এলাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ফটিকছড়ি বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৫৮ সালে।

তখন নারীরা শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত ছিলো । ধর্মীয় বিধিনিষেধে সীমাববদ্ধ ছিলো তাদের জীবন ও শিক্ষা। ঠিক সেই সময় এই অঞ্চলে নারী শিক্ষার প্রসারে প্রতিষ্ঠিত হয় এই ফটিকছড়ি বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়। যা কি না নারীদের জন্য নিয়ে আসে আশীর্বাদ।

প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এই বিদ্যালয় উত্তর চট্টগ্রামে আলো ছড়িয়ে আসছে। ক্রীড়া, গার্লস গাইড ও সংস্কৃতির বিকাশেও রাখছে অবদান।

এক ঝাঁক বিচক্ষণ ও মেধাবী শিক্ষকের অক্লান্ত পরিশ্রমে প্রতি বছর সন্তোষজক ফল করছে শিক্ষার্থীরা। বিশেষ করে প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ ইউছুফের অবদান প্রশংসার দাবি রাখে। চাকরি নয়, জ্ঞান ছড়ানোই যেন তাঁর লক্ষ্য।

ফটিকছড়ি বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৭০০। স্থানীয়দের দাবি- এই প্রতিষ্ঠানটি সরকারি করা হোক। এটি জাতীয়করণ হলে, নারী শিক্ষার প্রসারে আরো বেশি ভূমিকা রাখতে পারবে বলে মনে করেন তারা।