যৌন কেলেঙ্কারি: হাজী দানেশে ৩ শিক্ষকের চাকরিচ্যুতির দাবি

single-news-image

(আপলোড: ২:৩৪, জুলাই ৩১, ২০১৮)

সালাহ উদ্দিন আহমেদ, দিনাজপুর:

দিনাজপুরের হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমেস্ট্রি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. রমজান আলীর চাকরিচ্যুতির দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি- ড. রমজান আলী ছাত্রীদের যৌন হয়রানি এবং স্ত্রীর করা যৌতুক বিরোধী মামলায় অভিযুক্ত। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে এটি প্রমাণিত হওয়ার পরও, তাকে পদায়ন এবং চাকরি স্থায়ীকরণের উদ্যোগ নেয়া হয়। এর বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা।

একই অভিযোগে অভিযুক্ত ফিসারিজ টেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ফরিদুল্লাহ ও ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক দীপক কুমার সরকারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবিতে সম্প্রতি সংবাদ সম্মেলন করেছে প্রগতিশীল শিক্ষক  ফোরাম।

যৌন নির্যাতন নিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনার আলোকে বায়োকেমেস্ট্রি বিভাগের শিক্ষক রমজান আলীকে নির্বাহী আদেশে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আবুল কাসেম। সোমবার লিখিতভাবে ওই আদেশ তাকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. সফিউল আলম।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা বলছেন- ড. রমজান আলীসহ অভিযুক্ত তিন শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করে, নারীদের জন্য হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস নিরাপদ করতে হবে।