৯ হাজার বছরের পুরনো চুয়িংগাম

single-news-image

ডন ডেস্ক

হাজার হাজার বছর আগে মানুষ গাম চিবোতে শুরু করে। এর মধ্যে ছিল বিভিন্ন গাছ থেকে বের হওয়া আঠা, গাছের ছাল, বিভিন্ন সুস্বাদু ঘাস, ফলের দানা ও শষ্য।

১৯৯৩ সালের ১৫ আগস্ট বৃটেনের দি টেলিগ্রাফ এক প্রতিবেদনে জানায়, সম্প্রতি প্রত্নতত্ত্ববিদরা নয় হাজার বছরের পুরনো বার্চ গাছের ছালের চিবোনো তিনটি দলা বা বল পেয়েছেন। সুইডেনের পশ্চিমে ওরাস্ট দ্বীপে পাথর যুগের একটি জনবসতি খুঁড়ে এগুলো পাওয়া যায়। দলাগুলোতে এক টিন-এজারের দাঁতের ছাপ রয়েছে। বার্চ গাছের ছালের সাথে মধু মিশিয়ে কালো এই দলাগুলো তৈরি হয়েছে বলে প্রত্নতত্ত্ববিদের বরাতে জানিয়েছে পত্রিকাটি।

এই চুয়িংগামগুলি সবচে পুরনো বলে দাবি করেছেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা।

            

২০০৭ সালের ১৯ আগস্ট বৃটেনের মেট্রো পত্রিকা এক প্রতিবেদনে জানায়, সম্প্রতি ফিনল্যান্ডে পাঁচ হাজার বছরের পুরনো একটি চুয়িংগাম পাওয়া গেছে। মাটি খুঁড়ে এটি আবিষ্কার করেন ২৩ বছর বয়সী বৃটিশ প্রত্নতত্ত্ববিদ সারা পিকিন। চুয়িংগামটিতে মানুষের দাঁতের চিহ্ন রয়েছে।

সেসময় মানুষ গাছের ছালের রস বা আঠা মুখের ইনফেকশন সারাতে ব্যবহার করতো বলে জানিয়েছেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা। ভাঙা পাত্র জোড়া দেয়ার জন্যও ওই আঠা ব্যবহার হতো।

সূত্র: ডেইল মেইল